Apply Online e‑Passport নতুন ইপাসপোর্ট করার নিয়ম ২০২২

আপনি কি আপনার মূল্যবান পাসপোর্ট করতে চাইছেন? কিন্তু দুঃচিন্তায় আছেন কোন Passport বানাবেন বা কিভাবে দালাল ছাড়া পাসপোর্ট করার নিয়ম খুঁজে পাবেন? পাসপোর্ট প্রতিটি মানুষের জন্য ই পাসপোর্ট করার নিয়ম ২০২২ জেনে রাখা একটি গুরুত্বপূর্ণ জিনিস। Apply Online e‑Passport

তাই আমরা আপনাদের সুবিধার জন্য শতভাগ সঠিক নিয়মে অফিসিয়াল পাসপোর্ট করার নিয়ম, ই পাসপোর্ট করার নিয়ম ২০২২ নতুন সম্পর্কে জানাবো। আমাদের আজকের পোস্টের মাধ্যমে আপনারা আরো জানতে পারবেন-Apply Online e‑Passport
১. ই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম।
২. নতুন পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম।
৩. ই পাসপোর্ট পুলিশ ভেরিফিকেশন কিভাবে করতে হয়?
৪. ই পাসপোর্ট অনলাইন আবেদন করার যাবতীয় নিয়ম।
৫. পুরোনো পাসপোর্ট রিনিউ করার নিয়ম ২০২২ এবং
৬. ভারতীয় নাগরিকগণের জন্য ভারতের পাসপোর্ট করার নিয়ম।
৭. ই পাসপোর্ট করার নিয়ম ২০২২
বিস্তারিত জানতে পোস্টটি মনযোগ দিয়ে সম্পূর্ণ পড়ুন-

ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম ২০২২ নতুন | ই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম | ই পাসপোর্ট করার নিয়ম ২০২২ | ই পাসপোর্ট কি?Apply Online e‑Passport

দেশের সমস্ত প্রযুক্তি তিনদিন উন্নত থেকে উন্নততর হওয়ার মধ্য দিয়ে দেশের উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রয়েছে। ঠিক সেভাবেই এক দেশ থেকে অন্য দেশে যাওয়ার জন্য আমরা যে পাসপোর্ট ব্যবহার করি সেই পাসপোর্ট কেউ উন্নত থেকে উন্নততর প্রযুক্তিতে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। সেই চিন্তা কে কাজে লাগিয়ে ২০১৯ সালের জুলাই মাসে সর্বপ্রথম ই-পাসপোর্ট চালু করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।Apply Online e‑Passport

কিন্তু কিছু কারনে সমস্যার কারণে সেই সময় এই পাসপোর্ট চালু করা সম্ভব না হলেও ২০২০ সালের ২২ শে জানুয়ারি আনুষ্ঠানিকভাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ই-পাসপোর্ট চালু  করার কর্মসূচি উদ্বোধন ঘোষণা করেছেন। এর কিছুদিনের মধ্যেই ই পাসপোর্ট করার নিয়ম ২০২২ সম্পর্কে যাবতীয় তথ্যাদি সঠিকভাবে জানা সম্ভব হয়।
আমরা বর্তমানে যে পাসপোর্ট তিনি তা মূলত  এম আর পি. বা মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট জেটি সচরাচর আমরা সবাই কমবেশি দেখে থাকি। ই-পাসপোর্ট অধিক মেশিন রিডেবল পাসপোর্টের মতোই একই রকম দেখতে  কিন্তু এর মধ্যে বেশ কিছু পার্থক্য রয়েছে। বর্তমানে ই পাসপোর্ট করার নিয়ম ২০২২ অনুযায়ী বিশ্লেষণ করে দেখা যায় যে,
মেশিন রিডেবল পাসপোর্টে প্রথমে বায়ো ডাটা সম্মৃদ্ধ চেয়ে পেজগুলো আমরা দেখতে পাই  ই পাসপোর্ট এর ক্ষেত্রে এরকম কোন বিষয় থাকবে না বরং সেখানে ডিজিটাল ইনক্লুডেড কার্ড এবং চিপস থাকবে। যার  মধ্যে বাহক এর সমস্ত তথ্য সংরক্ষিত থাকবে। বিশেষত পাসপোর্ট বাহকের ছবি, আঙ্গুলের ছাপ, চোখের আইরিসের স্ক্যান কপি সহ বিভিন্ন ধরনের বায়ো ডাটা এই কার্ডের মধ্যে সংরক্ষিত থাকবে। এর ফলে তথ্য বিশ্লেষণ করা অনেক সহজ হয়ে গেছে।Apply Online e‑Passport

ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম ২০২২ নতুন | ই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম |  ই পাসপোর্ট করার নিয়ম ২০২২

ই পাসপোর্ট আবেদন করার জন্য সঠিক নির্দেশনা ই পাসপোর্ট করার নিয়ম ২০২২ যাবতীয় ডিটেলস বলা আছে। এর জন্য আপনাকে বেশ কিছু পদ্ধতি  অনুসরণ করতে হবে। শুরুতেই আপনাকে জেনে নিতে হবে যে আপনার এলাকা ই-পাসপোর্ট সাপোর্টেড কিনা। মানে আপনার এলাকায় ই পাসপোর্ট সেবা চালু আছে কিনা? দ্বিতীয়ত, আপনাকে অনলাইনে ফরম ফিলাপ করতে হবে অর্থাৎ ই পাসপোর্ট অনলাইন আবেদন এবং সর্বশেষ ধাপে আপনাকে আপনার সেবা অনুযায়ী পাসপোর্টের টাকা পে করতে হবে। Apply Online e‑Passport
Apply Online e‑Passport এর পরবর্তীতে আপনাকে একটি ডেট দেয়া হবে এবং সেটা আপনি আপনার নিকটস্থ পাসপোর্ট অফিসে যোগাযোগ করলে সেখানে আপনার বায়োমেট্রিক ছবি তোলা এবং আরো কিছু কার্যাদি সম্পন্ন করার পরবর্তী আপনি আপনার পাসপোর্ট হাতে পেয়ে যাবেন।

ই পাসপোর্ট অনলাইন আবেদন |  অফিসিয়াল পাসপোর্ট করার নিয়ম | ই পাসপোর্ট করার নিয়ম ২০২২ নতুন Apply Online e‑Passport

শুরুতে দেখে নিই কিভাবে আপনি জানবেন আপনার এলাকায় ই পাসপোর্ট সেবা আছে কিনা? মানে ই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম বা ই পাসপোর্ট করার নিয়ম ২০২২ অনুযায়ী তার আপনাকে করতে হবে। এজন্য আপনাকে নিম্নোক্ত ধাপগুলো অনুসরণ করতে হবে। ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম ২০২২ নতুন নিয়ম সমূহ Apply Online e‑Passport
১. প্রথমে www.epassport.gov.bd ওয়েব সাইটে প্রবেশ করতে হবে। এখান নিম্নোক্ত পেজটি দেখতে পাবেন।
Apply Online for e‑Passport
Apply Online e‑Passport
২. এরপর আপনাকে যেটি করতে হবে তা হল সরাসরি “APPLY ONLINE” এ প্রেস করতে হবে। এখানে আপনার কাছে বেশ কিছু অপশন যেমন আপনি কোথা থেকে এপ্লাই করছেন, আপনার ডিস্ট্রিক্ট নেম, আপনার নিকটস্থ থানা এসব অপশন গুলো পূরণ করার পর সরাসরি কন্টিনিউ করলে আপনি পরবর্তী ইন্টারফেসের চলে যাবেন। Apply Online e‑Passport
কিন্তু যদি আপনি সাপোর্টেড এরিয়ার মধ্যে না থাকেন তবে কিন্তু আপনাকে পরবর্তী ইন্টারফেসে নিয়ে যাবে না। এক্ষেত্রে সরাসরি আপনাকে এমআরপি পাসপোর্ট এর জন্য এপ্লাই করতে হবে। এটি সম্পূর্ণভাবে ই পাসপোর্ট করার নিয়ম ২০২২ এর আপডেট নিয়ম।
3. এবার আপনাকে আপনার ইমেইল ভেরিফিকেশন করতে হবে। এখানে আপনি যে ইমেইল এড্রেসটি লিখবেন সেটির পাসওয়াড যেন আপনার জানা থাকে। কারণ পাসওয়াড না জানলে আপনি সেটি ভেরিফাই করতে পারবেন না।

ইমেইলের পাসওয়াড মনে না থাকলে সেটি পরিবতন করে নিতে পারেন। Apply Online e‑Passport

আপনার ইমেইল টি লিখুন ও নিচের রোবট ভেরিফিকেশন টিক দিয়ে Continue বাটন ক্লিক করুন।

এবার আসবে দ্বিতীয় ধাপ যেখানে আপনার ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম ২০২২ নতুন এর জন্য অনলাইনে ফরম পূরণ করতে হবে। এজন্য আপনাকে বেশ কিছু নির্দিষ্ট নিয়ম মেনে চলতে হবে। আপনাদের সুবিধার্থে সমস্ত ই পাসপোর্ট করার নিয়ম ২০২২ এর সমস্ত নিয়ম গুলো দেখিয়ে দেওয়া হল। Apply Online e‑Passport
তবে মনে রাখবেন, পাসপোর্ট এর ইনফরমেশন যেন সঠিক হয়, কোনভাবেই যেন কোন ভুল না থেকে যায়। ভুল থেকে গেলে পরবর্তীতে আপনাকে কিন্তু ভুল কারেকশন করার জন্য অনেক ভোগান্তিতে পড়তে হবে। তাই যথাযথ সতর্কতার সাথে আপনার পাসপোর্ট এর ফরম ফিলাপ করবেন। Apply Online e‑Passport
অনলাইন এপ্লাই এর জন্য অ্যাকাউন্ট তৈরিঃ
১. এইভাবে শুরুতেই আপনাকে আপনার ইমেইল এড্রেস, পাসওয়ার্ড, আপনার নাম সহ আরো বেশ কিছু তথ্যাদি পূরণ করতে হবে। পাসওয়ার্ড টাইপ করার সময় অবশ্যই খেয়াল রাখবেন যেন সর্বনিম্ন 6 ক্যারেক্টারের হয় এবং সেখানে কমপক্ষে একটি ছোট হাতের এবং বড় হাতের অক্ষর থাকে।
তবে অবশ্যই একটি সংখ্যার থাকতে হবে। না হলে কিন্তু আপনার পাসওয়ার্ডটি ভ্যালিড বলে বিবেচিত হবে না। যেমন- ANMUL1234 ইত্যাদি। উল্লেখিত নিয়ম না মানলে আপনার ই পাসপোর্ট করার নিয়ম ২০২২ অনুযায়ী নিয়ম হবে না। যার ফলে আপনি পাসপোর্ট ও করতে পারবেন না। Apply Online e‑Passport

এখানে আপনার নাম, তথ্য ও জাতীয় পরিচয়পত্র বা নম্বর দিন এবং Save and Continue তে ক্লিক করুন।

The application can be started by entering the website ‘www.epassport.gov.bd’ and clicking on the first tab on the left titled ‘Apply Online

জাতীয় পরিচয়পত্র বা জন্ম নিবন্ধন কোনটি প্রয়োজন?

উল্লেখ্য যে, যদি আপনার বয়স ১৮ বছরের কম হয়ে থাকলে এবং জাতীয় পরিচয়পত্র না থাকলে আপনি অনলাইন বা ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন দিয়ে পাসপোর্টের আবেদন করতে পারবেন।

১৮-২০ বছরের মধ্যে বয়স হলে, আপনি জাতীয় পরিচয়পত্র (NID) বা জন্ম নিবন্ধন (BRC) উভয়টির যে কোন একটি দিয়ে আবেদন করতে পারবেন।

যদি আপনার বয়স ২০ বছরের বেশি হয়, আপনাকে অবশ্যই জাতীয় পরিচয় পত্রের নম্বর দিতে হবে। আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র বা স্মাট কার্ড না পেলে, জাতীয় পরিচয়পত্র অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে পারেন। Apply Online e‑Passport

আপনার পূর্বের কোন পাসপোর্ট থাকলে Yes দিন আর না থাকলে No, I don’t have any previous/ handwritten passport. Apply Online e‑Passport

Visa Application Form? — Who Needs Visa Application Form? Applying for a visa is a complicated process in any country. It is no exception Apply Online e‑Passport

আপনার Present Address ও Permanent Address সঠিকভাবে লিখুন। যদি বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা একই হয়, নিচের বক্সে টিক দিন।

এরপর আপনার পিতা মাতার নাম তাদের জাতীয় পত্র অনুসারে লিখুন। আপনার স্বামী বা স্ত্রীর নাম ও জাতীয় পরিচয়পত্র অনুসারে লিখুন।Apply Online e‑Passport

জরুরী প্রয়োজনে যোগাযোগের জন্য আপনার পরিবারের বাবা, ভাই বা অন্য কারো নাম, ঠিকানা ও মোবাইল নম্বর দিন।

এবার আপনার পাসপোর্টের ধরন, পাতা ও ডেলিভারী সাধারণ বা জরুরী বাছাই করুন।

সবশেষে আপনার সব তথ্য পূনরায় যাচাই করে আবেদন জমা দিতে  Submit বাটনে ক্লিক করুন।

ই পাসপোর্ট ফি প্রদান ও আবেদন প্রিন্ট

আপনার আবেদন করা হলে প্রিন্ট করার জন্য আপনি ২টি পৃষ্ঠা পাবেন। 1) Application Summery, 2) Online Registration Form. এগুলো আপনি প্রিন্ট করে নিতে পারেন বা পিডিএফ ফাইল হিসেবে আপনার কম্পিউটারে সেইভ করতে পারেন। Apply Online e‑Passport

Application summery টি ১ পৃষ্ঠা ও Online Registration form টি উভয় পৃষ্ঠায় প্রিন্ট করবেন।

আপনার ই পাসপোর্টের ফি বিকাশের মাধ্যমে ঘরে বসেই কিভাবে প্রদান করবেন এখানে দেখুন Passport fee by bKash

ই পাসপোর্ট অনলাইন আবেদন বাতিল করার নিয়ম

অনলাইনে ই পাসপোর্টের আবেদন করা হলে, আপনি নিজে থেকে আবেদন বাতিল করার কোন সুযোগ নেই। আবেদন বাতিলের জন্য আপনি আপনার জেলা আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালকের কাছে লিখিত আবেদন করতে পারেন।

তাছাড়া, আবেদনে কোন প্রকার ভুলের কারণে যদি আবেদন বাতিল করতে চান, তা বাতিল না করলেও পারেন। পাসপোর্ট অফিস থেকে এসব ভুল সংশোধন করে পাসপোর্ট আবেদন এনরোলমেন্টে দিতে পারবে। এজন্য আপনার ভুলের ব্যপারে অফিসে অবগত করুন।

ই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম

অনলাইনে ই পাসপোর্ট আবেদন করার পর, আবেদনটি কোন পর্যায়ে আছে তা আপনি অনলাইন থেকেই জানতে পারবেন।

অনলাইনে পাসপোর্ট চেক করার নিয়মটি খুবই সহজ। ই পাসপোর্টের বর্তমান স্ট্যাটাস চেক করতে পারবেন এখানে- ই পাসপোর্ট স্ট্যাটাস চেক

কিভাবে ই পাসপোর্ট চেক করবেন এবং বিভিন্ন পাসপোর্ট স্ট্যাটাস এর অর্থ ও ব্যাখ্যা জানতে পড়ুন – পাসপোর্ট স্ট্যাটাস ডিটেলস

ই পাসপোর্ট রিনিউ করার নিয়ম- MRP to E Passport

যদি আপনার একটি এমআরপি পাসপোর্ট থাকে যার মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গেছে, আপনি এটিকে রিনিউ করে ই পাসপোর্ট পেতে পারেন।

এজন্য রিনিউ করার কোন আবেদন করতে হবেনা, আপনাকে নতুনভাবে ই পাসপোর্টের আবেদন করতে হবে। আবেদনের ক্ষেত্রে ID Documents অপশন থেকে শুধু মাত্র আপনার পূর্ববর্তী এমআরপি পাসপোর্টের তথ্য দিবেন।

এমআরপি থেকে ই পাসপোর্টে রিনিউ করার সুবিধা

MRP পাসপোর্ট থেকে ই পাসপোর্টে রিনিউ করার বড় সুবিধা হলো, তথ্য পরিবর্তন। অর্থাৎ আপনার পূর্ববর্তী পাসপোর্টে যদি কোন তথ্যের ভুল থাকে আপনি সহজেই বর্তমান জাতীয় পরিচয়পত্র অনুসারে সঠিক তথ্য ই পাসপোর্টে অর্ন্তভুক্ত করতে পারবেন।

ই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম | e passport check online application form | পাসপোর্ট রিনিউ করার নিয়ম ২০২২ | ই পাসপোর্ট পুলিশ ভেরিফিকেশন

পুলিশ ভেরিফিকেশন কথাটা শুনে অনেকে হয়তো ঘাবড়ে যেতে পারেন কিন্তু আসলে এটা তেমন কিছুই না যদি আপনার ইনফর্মেশন সবকিছু ঠিক থেকে থাকে। হ্যাঁ আমি এই পাসপোর্ট পুলিশ ভেরিফিকেশন এর কথাই বলছি। আপনার যাবতীয় তথ্য সহ ঠিকানা (স্থায়ী-অস্থায়ী) যদি থেকে থাকে তাহলে আপনার পুলিশ ভেরিফিকেশন নিয়ে চিন্তার কোন কারণ নেই। ই পাসপোর্ট পুলিশ ভেরিফিকেশন কি? কিভাবে পাসপোর্ট পুলিশ ভেরিফিকেশন হয়ে থাকে বা আদৌ কোনো অর্থ দেওয়া লাগবে কিনা বা কোনো কাগজপত্র সংশ্লিষ্ট লাগবে কিনা সেই বিষয় নিয়ে আসতে আপনাদেরকে জানাবো।
ই পাসপোর্ট পুলিশ ভেরিফিকেশন মূলত আপনার পাসপোর্ট আবেদন করার বেশ কিছুদিন পরে আপনার যে স্থায়ী ঠিকানা সেখানে পুলিশ কর্তৃপক্ষ থেকে যেকোনো একজন ব্যক্তি যাবেন এবং আপনার সঠিকতা যাচাই করবেন। এখানে বলে রাখা ভাল আপনার নিজস্ব বাড়িতে কিন্তু পুলিশ যাবে। সে ক্ষেত্রে আপনার অথবা আপনার অভিভাবকের প্রদত্ত বিদ্যুৎ বিলের কাগজ দেখতে চাইবে। হ্যাঁ আজকে আপনাদেরকে যে ঘটনাটি বলব সেটি আমার বড় ভাই এর ঘটনা এবং এই পুলিশ ভেরিফিকেশনে আমি কথা বলতে গেছিলাম।
আমার ভাইয়া চাকরির সূত্রে ঢাকায় থাকে এবং আমাদের নিজস্ব বাড়ি রাজশাহী শহরে। পুলিশ কর্তৃপক্ষ থেকে ভাইয়াকে জানানো হয়েছিল আজকে তার বাড়িতে পুলিশ ভেরিফিকেশনের জন্য যেকোনো সময় লোক যাবে তিনি যেন বিলের কাগজ ফটোকপি করে রেডি করে রাখেন।
কথামত আমি আমার বাবার একটি বিলের ফটোকপি রেডি করে রাখলাম এবং ফোনের অপেক্ষা করতে লাগলাম। কিছুক্ষণ পরে ফোন দিয়ে জানালো পুলিশের লোক বাড়ির কাছাকাছি কোন একটা এরিয়াতে এসেছে এবং সে বাড়ি চিনতে পারছেনা যার কারণে তুমি সেখানে যাও। আমি সঠিক লোকেশন টা জেনে নিয়ে সেখানে বিলের কাগজ নিয়ে গেলাম এবং সংশ্লিষ্ট পুলিশ অফিসারের কাছে সেটি জমা দিলাম।
Apply online; 5 STEPS TO e‑PASSPORT; Urgent applications; Instructions; Passport fees; Check status; Contact. Created with sketchtool. Apply Online for
বলে রাখি পুলিশ অফিসার কিন্তু সিভিল পোশাকধারী ছিলেন। তিনি আমার কাছে জানতে চান পাসপোর্ট আবেদনকারী আমার কে হন? আমার বাবা কি করেন? মা কি করেন? আমার ভাই কি করেন? ভাইয়ার পড়াশোনা কোথা থেকে? দেশের বাড়ি কোথায়? ভাইয়া কোথা থেকে পড়াশোনা করেছেন? এ সমস্ত কিছু স্বাভাবিক প্রশ্ন। তারপর তিনি বিল এর ফটোকপি জমা নিয়ে চলে যানApply Online e‑Passport
এটাই ছিল মূলত ই পাসপোর্ট পুলিশ ভেরিফিকেশন এর সিস্টেম। তার কিছুদিন পরেই আমার ভাইয়া তার পাসপোর্ট হাতে পেয়ে যান। বলে রাখি এখানে কিন্তু কোন প্রকার অর্থ প্রদান করা লাগেনি বা তথ্যে যেহেতু কোন ভুল ছিল না সেহেতু আমাদের কোনো অতিরিক্ত অর্থ উৎকোচ হিসেবে প্রদান করতে হয়নি সমস্ত কিছু লিগাল পদ্ধতিতেই হয়েছে।
তাই ই পাসপোর্ট করার নিয়ম ২০২২ সঠিক মত মেনে চলে আপনিও খুব সহজেই কোন অতিরিক্ত অর্থ প্রদান করা ছাড়াই আপনার মূল্যবান পাসপোর্ট হাতে পেয়ে যাবেন।
পাসপোর্ট আমাদের অত্যন্ত মূল্যবান একটি কাগজ। যেটি দ্বারা বলতে পারেন আপনার বিদেশযাত্রা থেকে শুরু করে দেশের বিভিন্ন ধরনের কাজে প্রয়োজন হয়। এটা একদিকে আপনার আরেকটি আইডেন্টিটি বহনকারী কাগজ হিসেবে পরিচত। তাই যথাসম্ভব যত্নের সাথে এই পাসপোর্ট সংগ্রহ করে রাখা এবং বহন করা উচিত।
epassport application form e-passport application form bangladesh pdf e-passport application form pdf e passport check online e passport bangladesh e-passport login e passport form download online passport application

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.